July 5, 2020, 4:36 pm

প্রেমে পড়ার আগে হাজারবার ভাবুন

Spread the love

পাড়ার বা ক্লাসের কিউট ছেলেটা আপনার জন্য জান দিতে পারে। শুনলে কীভাবে মনকে কন্ট্রোল করবেন?

মন তো তখন এ কথা শুনে হাওয়ায় ভাসে। এত ভালোবাসা? এত তো কেউ কোনো দিন ভালোবাসেনি! এত ভালো কেউ বাসতে পারে? মা–বাবা, ভাইবোন তো শুধু বিরক্ত করে। নাহ, এই ভালোবাসা না পেলে জীবন বৃথা! মরণই সই। এ রকম ভালোবাসা ছাড়া চলবে না। মা, বাপ, ভাই, বোন—সব, সব মিথ্যা। এরা আমার জীবনটাকে অতিষ্ঠ করতেই শুধু চায়। আমার সুখের কোনো চিন্তাই তাদের নেই। দেখো আমার বন্ধু, বান্ধবী কী সুন্দর প্রেম করছে, কত খুশি তারা। আর আমি কত অসুখী।

ভালো আমাকে বাসতেই হবে। এই ব্যক্তিকেই। আরও তো শুনি, মন ভাঙা আর মসজিদ ভাঙা এক—কেমনে আমি এ কাজ করি? নরকে যেতে হবে না। এত ভালোবাসা ছেড়ে নরক?

মা–বাবার হোটেলে ফ্রি থাকা–খাওয়া, এ আর তেমন কী। মন থেকে এক ছটাকও কম হওয়া যাবে না এ উথালপাতাল ভালোবাসার। কেমনে কী? ভালো তো বাসি! ভালোই তো বাসি, চুরি তো করিনি। তবে ওই কিউটের ডিব্বাটা আমার মনটা চুরি করেছে।

মনটার দাম তো মন দিয়েই শুধরাতে হবে, নাকি?

মনে থাকে না যে ক্লাস ফেল হলে, মেয়েটি বা ছেলেটি অন্য ক্লাসে যাবে। ভালো কলেজ, চাকরির প্রতিযোগিতায় হেরে যাবেন আপনি। ভালো কোনো ক্যান্ডিডেটের কাছে চলে যাবে প্রেমাস্পদ।

তারপর ম্যাচিউরিটির সঙ্গে সঙ্গে মন বদলাবে, ভালোবাসা বদলাবে।কাজ না থাকলে বাপের হোটেলও বন্ধ হবে শিগগিরই…! থাকার জায়গা আর পেটে দানাপানি না পড়লে, স্বর্গীয় ভালোবাসা আর আহ্লাদ ছেড়ে রাগ আর ফ্রাসট্রেশন জীবনে ভর করবে।

তখন পেট চালানোর চাকরি আর ভাত–রুটি বানানোর প্রক্রিয়ায় প্রেমাস্পদের দিকে তাকানোর ফুরসত আর মিলবে না! সেই একই ভালোবাসার ব্যক্তিটি হয়ে যাবে অসহ্য, গলার কাঁটা!

হানিমুন শেষ তো প্রেমও শেষ। বাকিটা বাস্তবতা। জীবন ধারণের প্রয়োজনে জীবন বয়ে নেওয়া। সঙ্গে যোগ হয় শ্বশুর–শাশুড়ি আর অন্যরা যারা আপন কোনো দিনও হয় না, কিন্তু কর্তব্য যোগ করে…নিজেকে তখন কলুর বলদ ছাড়া কিছু মনেই হয় না। সেই সঙ্গে শখ–আহ্লাদ তো আছেই। যা হারাতে থাকে।

তার সঙ্গে যোগ হয় কারও কারও অপারগতা। শুধু পয়সায় নয়, বিছানায়, কমিউনিকেশনে। কারও হয়তো অসম্ভব আকাশকুসুম অবাস্তব শখ আর ইচ্ছা, যা পূরণ করার জন্য রাজা–বাদশা দরকার। কিন্তু বিয়ে হয় কেরানি বা দিন আনা দিন খাওয়া জনের সঙ্গে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     More News Of This Category
Translate »