July 4, 2020, 2:09 am

স্বাস্থ্যকর্মীদের তালি বাজিয়ে ধন্যবাদ, দুদিন পরেই সামাজিক হেনস্থা

Spread the love

বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাস মহামারীতে যখন স্বাস্থ্যকর্মী, অর্থাৎ ডাক্তার-নার্সরা যখন জীবনের ঝুঁকি নিয়ে আক্রান্তদের চিকিৎসা সেবা দিয়ে যাচ্ছেন, তার মধ্যেই অভিযোগ উঠছে তাদের সামাজিক হেনস্থার মুখে পড়তে হচ্ছে। কিছু এলাকার বাসিন্দারা তাদের পাড়ায় থাকা ডাক্তার নার্সদের অন্যত্র চলে যেতে চাপ দিচ্ছেন।

তাদের ভয়, করোনাইরাস আক্রান্ত রোগীদের সেবা দেওয়ার মাধ্যমে চিকিৎসক বা নার্সদের শরীরেও করোনা সংক্রমণ হতে পারে, যাতে শেষ পর্যন্ত তারাও আক্রান্ত হবেন। এরকম কিছু ঘটনা অন্যান্য দেশে ঘটেছে, তবে এবার চিকিৎসক এবং নার্সদের একইভাবে সামাজিক হেনস্থার ঘটনা সামনে এলো।

চিকিৎসা কর্মীরা বলছেন, তাদের অনেককে যেমন বাড়ি ছাড়ার কথা বলছেন মালিকরা, পাড়াপড়শীরাও বলছেন – হাসপাতাল থেকে বাড়ি না আসার কথা বলছেন। কোথাও আবার পাড়ার দোকানে গেলেও কথা শোনাচ্ছেন মানুষজন। সমাজের এক শ্রেণীর মানুষ যেমন চিকিৎসা কর্মীদের প্রতি মায়ামমতা দেখাচ্ছে না, ছাড় দিচ্ছে না তাদের সন্তানদেরও। ” সন্তানদের সঙ্গে খেলাধুলোও করছে না অন্য বাচ্চারা। আবার প্রাইভেট টিউটর বারে বারে শুধু ওকেই জিজ্ঞাসা করছেন যে সাবান দিয়ে ভাল করে হাত ধুয়েছে কী না। আমি তাই বাচ্চার পড়া আপাতত বন্ধ রেখেছি।”

“খুবই দুঃখজনক ব্যাপার হচ্ছে এগুলো। তবে এগুলো নতুন কিছু নয়। আগেও যখন যক্ষ্মা বা কুষ্ঠ রোগের চিকিৎসা করতেন ডাক্তাররা, বা আরও হালে এইচ আই ভি রোগীর চিকিৎসা করা ডাক্তারদের এরকম সামাজিক হেনস্থার মুখে বারে বারেই পড়তে হয়েছে।”

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     More News Of This Category
Translate »